সোমবার ২৭ জুন ২০২২, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

ক্রেতা সংকটে শেয়ারবাজার

প্রকাশিত : 04:51 PM, 21 June 2022 Tuesday

গণঅধিকার নিউজ ডেস্কঃ

ক্রেতা সংকট দেখা দিয়েছে দেশের শেয়ারবাজারে। এতে ঘটছে টানা দরপতন। সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার (২১ জুন) প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) শতাধিক প্রতিষ্ঠানের ক্রয় আদেশের ঘর শূন্য হয়ে পড়ে। এতে বড় পতন হয়েছে মূল্যসূচকের। এর মাধ্যমে সপ্তাহের তিন কার্যদিবসেই শেয়ারবাজারে দরপতন ঘটলো।

ডিএসইর পাশাপাশি দেশের অন্য শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) ক্রেতা সংকট দেখা দেয়। ফলে দরপতন হয় লেনদেনে অংশ নেওয়া অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের। এতে মূল্যসূচকের বড় পতন হয়েছে। মূল্যসূচক কমার পাশাপাশি ডিএসইতে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। তবে সিএসইতে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে।

এদিন শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হয় অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার মাধ্যমে। ফলে লেনদেন শুরু হতেই ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ৫ পয়েন্ট বেড়ে যায়। তবে লেনদেনের সময় পাঁচ মিনিট না গড়াতেই একের পর এক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটির দরপতন হতে থাকে।

এতে লেনদেনের সময় আধাঘণ্টা না গড়াতেই অর্ধশতাধিক প্রতিষ্ঠানের ক্রয় আদেশের ঘর শূন্য হয়ে পড়ে। লেনদেনের সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে তালিকা। দিনের লেনদেন শেষে ক্রেতাশূন্য প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা দাঁড়ায় ১১৪টি।


The Blog
অর্থনীতি

ক্রেতা সংকটে শেয়ারবাজার
মঙ্গলবার, ২১ জুন ২০২২
ক্রেতা সংকটে শেয়ারবাজার
ক্রেতা সংকট দেখা দিয়েছে দেশের শেয়ারবাজারে। এতে ঘটছে টানা দরপতন। সপ্তাহের তৃতীয় কার্যদিবস মঙ্গলবার (২১ জুন) প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) শতাধিক প্রতিষ্ঠানের ক্রয় আদেশের ঘর শূন্য হয়ে পড়ে। এতে বড় পতন হয়েছে মূল্যসূচকের। এর মাধ্যমে সপ্তাহের তিন কার্যদিবসেই শেয়ারবাজারে দরপতন ঘটলো।

Advertisement

ডিএসইর পাশাপাশি দেশের অন্য শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও (সিএসই) ক্রেতা সংকট দেখা দেয়। ফলে দরপতন হয় লেনদেনে অংশ নেওয়া অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের। এতে মূল্যসূচকের বড় পতন হয়েছে। মূল্যসূচক কমার পাশাপাশি ডিএসইতে কমেছে লেনদেনের পরিমাণ। তবে সিএসইতে লেনদেন কিছুটা বেড়েছে।

এদিন শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হয় অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার মাধ্যমে। ফলে লেনদেন শুরু হতেই ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ৫ পয়েন্ট বেড়ে যায়। তবে লেনদেনের সময় পাঁচ মিনিট না গড়াতেই একের পর এক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটির দরপতন হতে থাকে।

এতে লেনদেনের সময় আধাঘণ্টা না গড়াতেই অর্ধশতাধিক প্রতিষ্ঠানের ক্রয় আদেশের ঘর শূন্য হয়ে পড়ে। লেনদেনের সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে তালিকা। দিনের লেনদেন শেষে ক্রেতাশূন্য প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা দাঁড়ায় ১১৪টি।

Advertisement

বিপুল সংখ্যক প্রতিষ্ঠানের ক্রেতা সংকট দেখা দেওয়ায় দিনের লেনদেন শেষে মাত্র ৫৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লেখাতে পেরেছে। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ২৮২টি। আর বাকি ৪৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।

এতে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ৪৫ পয়েন্ট কমে ৬ হাজার ৩১১ পয়েন্টে নেমে গেছে। অন্য দুই সূচকের মধ্যে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক ১৯ পয়েন্ট কমে দুই হাজার ২৯৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ আগের দিনের তুলনায় ৯ পয়েন্ট কমে এক হাজার ৩৭৮ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

মূল্যসূচক কমার পাশাপাশি বাজারটিতে কমেছে লেনদেনের পরিমাণও।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দৈনিক গণঅধিকার'কে জানাতে ই-মেইল করুন- dailyganoadhikar@gmail.com আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দৈনিক গণঅধিকার'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দৈনিক গণঅধিকার | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি, ডেভোলপ ও ডিজাইন: DONET IT